প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৪ নভেম্বর ২০১৮

লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

১. রূপকল্প: 

অর্থের অভাবে শিক্ষার সুযোগ বঞ্চিত দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা নিশ্চিতকরণ।

 

২. অভিলক্ষ্য:

৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যন্ত দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার রোধ, বাল্যবিবাহ রোধ এবং শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা নিশ্চিতকরণ।

 

৩. কৌশলগত উদ্দেশ্যসমূহ:

৩.১  ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে স্নাতক/সমমান পর্যন্ত দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান।

৩.২  ট্রাস্ট ফান্ড সংগ্রহে সরকারের পাশাপাশি বিত্তশালী ও বিভিন্ন অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠানকে সম্পৃক্তকরণ।

৩.৩  শিক্ষার মানোন্নয়ন ও ঝরে পড়া রোধ করা।

 

৪. কার্যাবলি:

    ক) স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান।

    খ) নারী শিক্ষার মানোন্নয়ন ও শিক্ষার্থী ঝরে পড়া রোধকল্পে করণীয় বিষয়ে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে কর্মশালা অায়োজন।

    গ) দরিদ্র মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নিশ্চিতকরণের আর্থিক সহায়তা নীতিমালা, ২০১৫” মোতাবেক আর্থিক সহায়তা প্রদান।     

    ঘ) দুর্ঘটনার কারণে গুরুতর আহত দরিদ্র মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীর এককালীন অার্থিক অনুদান প্রদান সংক্রান্ত নীতিমালা, ২০১৫” মোতাবেক আর্থিক অনুদান প্রদান।

    ঙ) স্নাতকোত্তর পর্যায়ে উচ্চতর গবেষণার জন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এম.ফিল.ও পিএইচ.ডি. কোর্সে নিবন্ধিত বা গবেষণায় নিয়োজিত গবেষককে ফেলোশিপ ও বৃত্তি প্রদান।

    চ) ট্রাস্ট ফান্ড সংগ্রহের নিমিত্ত ব্যবসায়ী ও ব্যাংক মালিকদের সাথে মাননীয় অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সভা আহবান ও অর্থ সংগ্রহ।

      


Share with :

Share with :

Facebook Facebook